Posts

Showing posts with the label কৃষি

রুট স্টক ও সায়ন বলতে কী বুঝ?

Image
জোড় কলমের দুটি অংশ - ১. রুট স্টক ও  ২. সায়ন। অনুন্নত যে গাছের সঙ্গে জোড়া লাগানো হবে সে গাছটিকে রুট স্টক বলে।  আর যে অঙ্গে উন্নত জাতের গাছের স্টকের সঙ্গে লাগানো হবে তাকে বলা হয় সায়ন। রুট স্টক ও সায়নের জোড়া লাগানোর পদ্ধতিকে জোড় কলম বলে। জোড় কলম আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশের মানুষকে মাছে ভাতে বাঙালি বলা হয় কেন? একটি সমাজ গঠন করতে কৃষি কিভাবে ভূমিকা পালন করে? কিভাবে সেচের পানির অপচয় হয়? ফলগাছের গোড়ায় এবং শাকসবজির ক্ষেতে কোন কোন পদ্ধতিতে সেচ দেওয়া হয়? রুট সটক ও সায়ন বলতে কী বুঝ? ২টি সবুজ সারের নাম লিখ।

২টি সবুজ সারের নাম লিখ।

জমিতে যেকোনো সবুজ উদ্ভিদ জন্মিয়ে কচি অবস্থায় চাষ করে মাটিতে যে সার প্রস্তুত করা হয় তাকে সবুজ সার বলে।  ধইঞ্চা, গোমটর, বরবটি, শন, কলাই এসব ফসল দ্বারা এ সার তৈরি করা যায়। সবুজ সার প্রস্তুতির নিয়মঃ প্রথমে এসব ফসলের যেকোনো একটি জমিতে চাষ করতে হবে। ফুল আসার আগে তা মই দিয়ে মাটির সাথে মেখাতে হবে। তারপর আরও ৩ - ৪ বার চাষ ও মই দিয়ে মাটি ওলটপালট করে মাটির সাথে ভালোভাবে মেশালে ২ সপ্তাহের মধ্যে সম্পূর্ণ পচে যায়। সবুজ সার যেখানে তৈরি হয় সেখানেই ব্যবহৃত হয়। আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশের মানুষকে মাছে ভাতে বাঙালি বলা হয় কেন? একটি সমাজ গঠন করতে কৃষি কিভাবে ভূমিকা পালন করে? কিভাবে সেচের পানির অপচয় হয়? ফলগাছের গোড়ায় এবং শাকসবজির ক্ষেতে কোন কোন পদ্ধতিতে সেচ দেওয়া হয়? রুট সটক ও সায়ন বলতে কী বুঝ? ২টি সবুজ সারের নাম লিখ।

ফলগাছের গোড়ায় এবং শাকসবজির ক্ষেতে কোন কোন পদ্ধতিতে সেচ দেওয়া হয়?

ফলগাছের গোড়ায় সেচ পদ্ধতি ফলগাছের গোড়ায় বৃত্তাকার সেচ পদ্ধতিতে পানি সেচ দেওয়া হয়। নিম্নে বৃত্তাকার সেচ পদ্ধতি বর্ণনা করা হলো : এই সেচ পদ্ধতিতে সমস্ত জমিতে সেচ না দিয়ে শুধু যে স্থানে গাছ রয়েছে সেখানেই পানি সরবরাহ করা হয়। সাধারণত বহুবর্ষজীবী ফলগাছের গোড়ায় এই পদ্ধতিতে সেচ দেওয়া হয়। ফলগাছের মাঝ বরাবর একটি প্রধান নালা কাটা হয়। অতঃপর প্রতি গাছের গোড়ায় বৃত্তাকার নালা কাটা হয় এবং প্রধান নালার সংযোগ দেওয়া হয়। এই পদ্ধতিতে সেচ দিলে - পানির অপচয় হয় না। পানি নিয়ন্ত্রণ সহজ হয়। শাকসবজির ক্ষেতে সেচ পদ্ধতি শাকসবজির ক্ষেতে ফোয়ারা সেচ পদ্ধতিতে পানি সেচ দেওয়া হয়। নিম্নে ফোয়ারা সেচ পদ্ধতি বর্ণনা করা হলো : ফসলের জমিতে বৃষ্টির মতো পানি সেচ দেওয়াকে ফোয়ারা সেচ বলে। শাক - সবজির ক্ষেতে এই পদ্ধতিতে সেচ দেওয়া হয়। আমাদের দেশে বীজতলায় কিংবা চারা গাছে ঝাঁঝরি দিয়ে যে সেচ দেওয়া হয় তাও ফোয়ারা সেচ। আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশের মানুষকে মাছে ভাতে বাঙালি বলা হয় কেন? একটি সমাজ গঠন করতে কৃষি কিভাবে ভূমিকা পালন করে? কিভাবে সেচের পানির অপচয় হয়? ফলগাছের গোড়ায় এবং শাকসবজির ক্ষেতে কোন কোন পদ্ধতিতে সেচ দেওয়া হয়? রুট সটক ও সায়ন বলতে কী

কিভাবে সেচের পানির অপচয় হয়?

বিভিন্নভাবে সেচের পানির অপচয় হয়। কিভাবে সেচের পানির অপচয় হয় তা নিচে উল্লেখ করা হলো - ১। বাষ্পীভবন ২। পানির অনুস্রবণ ৩। পানি চুয়ানো বাষ্পীভবন : সূর্যের তাপে প্রতিনিয়ত খাল-বিল, নদী-নালা থেকে যেভাবে পানি বাষ্পীভূত হচ্ছে তেমনি ফসলের জমির সেচের পানিও বাষ্পীভূত হচ্ছে। পানির এই বাষ্পীভবন রোধ করা কঠিন ব্যাপার। তবে সময়মতো এবং পরিমাণমতো পানি সেচ দিতে হবে যাতে ফসল নিজ প্রয়োজনে পানি গ্রহণ করতে পারে। পানির অনুস্রবণ : সেচের পানির মাটির স্তর ভেদ করে সোজাসুজি নিচের দিকে চলে যাওয়াকে পানির অনুস্রবণ বলা হয়। অনুস্রবণের মাধ্যমে সেচের পানির অনেক অপচয় হয়। সেচের নালায় বা জমিতে শক্ত স্তর না থাকলে সহজেই পানির অনুস্রবণ ঘটে। অতএব, নালা বা জমিতে শক্ত স্তর সৃষ্টি করে পানির অনুস্রবণ রোধ করা যায়। পানি চুয়ানো : পানি চুয়ানো পানির অনুস্রবণের অনুরূপ। শুধু পার্থক্য হলো অনুস্রবণের মাধ্যমে পানি নিচে চলে যায়। আর চুয়ানোর মাধ্যমে পানি অন্য ক্ষেতে চলে যায়। অনেক ইঁদুর আইলের এপাশ - ওপাশ গর্ত করে। ইঁদুরের গর্তের মাধ্যমেও পানি চুইয়ে অন্যত্র চলে যায়। অতএব, শক্ত মাটি দ্বারা এমনভাবে ক্ষেতের আইল ও নালা করতে হবে যেন পানি চুইয়ে না

বাংলাদেশের মানুষকে মাছে ভাতে বাঙালি বলা হয় কেন?

বাংলাদেশের নদী, খাল, বিল, হাওর, বাঁওড়ের দেশ। ফলে প্রাকৃতিকভাবেই মিঠা পানির মাছের বৈচিত্র্যধন্য এই দেশ। হয়তোবা এ কারণেই বাঙালির খাদ্য তালিকায় মাছ একটি প্রিয় বস্তু। বাঙালির একটি পরিচয় 'মাছে ভাতে বাঙালি'। মাছ পালন ও উৎপাদন তাই আমাদের কৃষির একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। পুকুরসহ বিভিন্ন জলাশয়ে মাছ চাষ লাভজনকও বটে। চাষ করা মাছের সম্পূরক খাদ্য উৎপাদন হিসেবে তাই 'ফিশ ফিড' নামক একটি সহায়ক কৃষিশিল্পও গড়ে উঠেছে। আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশের মানুষকে মাছে ভাতে বাঙালি বলা হয় কেন? একটি সমাজ গঠন করতে কৃষি কিভাবে ভূমিকা পালন করে? কিভাবে সেচের পানির অপচয় হয়? ফলগাছের গোড়ায় এবং শাকসবজির ক্ষেতে কোন কোন পদ্ধতিতে সেচ দেওয়া হয়? রুট সটক ও সায়ন বলতে কী বুঝ? ২টি সবুজ সারের নাম লিখ।

একটি সমাজ গঠন করতে কৃষি কিভাবে ভূমিকা পালন করে?

Image
আদিযুগে পরিবারের সদস্যরা সক্ষমতা ও সুবিধা অনুযায়ী পরিবারের কাজগুলো করতেন। এভাবেই মানুষের মাঝে শ্রম বিভাজনের সুবিধা তৈরি হয়েছিল। সমাজ গঠনে এই শ্রম বিভাজন ভূমিকা রেখেছিল। দিনে দিনে পরিবারের আকার ও সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে শুরু করল। মানুষ ফসলের পরিচর্যা করে ফলন বৃদ্ধি করতে শিখল। ফসল বেশিদিন সংরক্ষণ করে রাখার বিভিন্ন উপায় সম্পর্কে অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা অর্জন করল। ফলে কৃষির পরিধি ও পরিসর বৃদ্ধি পেতে থাকল। কৃষি বিষয়ক এসব পরিবর্তনের সাথে খাপ খাওয়ানোর জন্য মানুষ তাদের বসবাসসহ বিভিন্ন অভ্যাসের পরিবর্তন করেছিল। মানুষ আর গুহায় না থেকে পরিবেশ থেকে মাটি, বাঁশ, কাঠ, পাতা ব্যবহার করে ঘর-বাড়ি তৈরি করতে শুরু করল। এভাবে বেশকিছু পরিবারের বসতবাড়ি মিলে গ্রামের পত্তন হয়। কৃষির কারণেই মানুষ বেশি বেশি পরিবেশ সচেতন হতে থাকল। ঋতুচক্রের উপর ফসল উৎপাদন যে নির্ভরশীল এটা শিখল। কোন ঋতুতে কোন ফসল উৎপাদন করা যায় তা বুঝল। ফলে উৎপাদন দ্রুতই বাড়তে লাগলো। কৃষিকাজ এবং পরিবারের নানা আনুষঙ্গিক জিনিসের প্রয়োজন অনুভব করে তা উৎপাদনে কিছু লোক অন্যদের চাইতে দক্ষতার পরিচয় দেওয়ায় শ্রম বিভাজন হলো। কুমার মাটির হাঁড়ি-পাতিল, কামার ধাতবযন্ত্

Popular posts from this blog

রুট স্টক ও সায়ন বলতে কী বুঝ?

বাংলাদেশের মানুষকে মাছে ভাতে বাঙালি বলা হয় কেন?

একটি সমাজ গঠন করতে কৃষি কিভাবে ভূমিকা পালন করে?

২টি সবুজ সারের নাম লিখ।

কিভাবে সেচের পানির অপচয় হয়?

ফলগাছের গোড়ায় এবং শাকসবজির ক্ষেতে কোন কোন পদ্ধতিতে সেচ দেওয়া হয়?

ছত্রাককে মৃতজীবী বলা হয় কেন?

তাওহিদ বিশ্বাস করা প্রয়োজন কেন?

বৈদ্যুতিক পাখার সুইচ বন্ধ করার সাথে সাথে থেমে যায় না কেন?

স্বাধীনতার পর যুদ্ধবিধস্ত বাংলাদেশ পূণর্গঠন প্রক্রিয়ার বর্ণনা দাও।